স্তব্ধ সময়ে কণকাঞ্জলি কঙ্কাবতী


monjur

লিখেছেন- মঞ্জুরুল হক

এইখানে হলদে সবুজ শর্ষেক্ষেতের আল ধরে দিগন্তে মেশা
চরাচর আকাশে লীন হয়েছে।
আরও দূরে যেখানে ঘোলাটে আকাশ সবুজাভ
আভায় আরক্ত হয়েছে!
শর্ষে রেণু পলকে পলকে ভাসতে ভাসতে
কোথায় যেন মিইয়ে গেছে, কেউ দেখেনি।
অসমাপ্ত কবিতায় একাকী বিস্তৃত ফসলের মাঠ
অভাবী সংসারের মত হাহাকারে বিদীর্ণ।

প্রাণহীন ফসলের মাঠে লাল পেড়ে জামদানী
প্রাণময় যে শরীরে, সেখানে রৌদ্র তাপে পোড়া
ভূমি সিক্ত হাসিতে, মৃদু হাসিতে।
নিঃসঙ্গ চরাচরে একাকী মানবী, যার
এক হাতে জয়ীতা আগুন, আর হাতে রঙে
ভেজানো তুলি… আকাশের ক্যানভাসে ভেসে
উঠছে পরলৌকিক ছবি।

কণকাঞ্জলি কঙ্কাবতী তোমার হাত প্রসারিত করো,
মরাল গ্রীবা উন্নিত করে দেখো, দেখো জলহীন
মেঘের আদরে শুষ্ক আকাশ।
তোমার ঠোঁঠ সিক্ত করো, চিবুকের তিল ছুঁয়ে দেখো;
সেখানে মৌমাছির আলিঙ্গন; ওরা শর্ষে ফুলে বসে ছিল।
হেমাঙ্গিনী হৈম, টান করো ধনুক ছিলা-
চরণ স্থির করো।
সারি সারি পুস্পাঞ্জলি নৈবেদ্য তোমার চরণে;
তোমার চরণ প্রলম্বিত করো।
ফুলে ফুলে ভরে যাক চারিধার-
তুমি অনুর্বর বুকে ফসল ফলাও ফসল ফলাও ফসল ফলাও…

২১ জানুয়ারি, ২০১৮

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s